সিয়ামের কাছে শাকিবের পরাজয়!

মিডিয়া ভূবন২৪- চলচ্চিত্র ব্যবসার সঙ্গে সংশ্লিষ্টদের মতে, অগ্রিম টাকা আদায়ে শাকিব খান এখনো রাজার আসনে। প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আবদুল আজিজের দাবি, সেই চিত্রটা এবার পাল্টে যাচ্ছে। এখন শাকিব খানের পাশাপাশি দেশের সিনেমার অন্য নায়কের ছবিও প্রেক্ষাগৃহ মালিক বেশি টাকা দিয়ে নেবেন। ‘দহন’ ছবির মধ্য দিয়ে তার সূচনা হলো। ঢালিউডে এ সময়ের সেনসেশন সিয়ামের নতুন ছবি ‘দহন’ বেশি টাকায় প্রেক্ষাগৃহের মালিকেরা প্রদর্শনের জন্য নিচ্ছেন।

সিয়ামের ছবিও নাকি এক লাখ থেকে শুরু করে সাড়ে পাঁচ লাখ টাকায় প্রেক্ষাগৃহ মালিকেরা প্রদর্শনের জন্য নিচ্ছেন। বাংলাদেশের শাকিব খানের সিনেমা শুরুতে এক লাখ থেকে শুরু করে পাঁচ লাখ টাকায় প্রদর্শন করে থাকেন প্রেক্ষাগৃহের মালিকেরা।  আবদুল আজিজ চান না কম টাকায় ছবিটি প্রদর্শিত হোক।

তিনি বলেন, ‘আমাদের ইচ্ছে অল্প টাকার বিনিময়ে বেশি প্রেক্ষাগৃহে প্রদর্শনের চেয়ে বেশি টাকায় কম প্রেক্ষাগৃহে প্রদর্শন করা অনেক ভালো। আমরা জানি, এই ছবিতে অনেকগুলো শক্তিশালী দিক রয়েছে। অসাধারণ একটি ছবি। বাংলাদেশের মানুষের কাছে সিয়াম ও পূজার গ্রহণযোগ্যতা তৈরি হয়েছে। এই ছবির গল্পের জোর আছে। পরিচালক রায়হান রাফি দারুণ একটা ছবি বানিয়েছেন। জাজ মাল্টিমিডিয়াও একটা ফ্যাক্টর। সবকিছু মিলিয়ে ছবিটি হাই ভোল্টেজ বলতে পারেন। তাই আমরা কম টাকায় ছবিটি প্রেক্ষাগৃহে প্রদর্শন না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। প্রয়োজনে কম প্রেক্ষাগৃহে চালাব, কিন্তু রেন্টাল কমাব না।’

আবদুল আজিজ বলেন, ‘“দহন” ছবিটি দর্শক অবশ্যই পছন্দ করবেন। বাংলাদেশে এ ধরনের গল্প নিয়ে ছবি হয়নি। এই ছবির গান ভালো, অভিনয়শিল্পীরাও দারুণ অভিনয় করেছেন। এই গল্পে আমাদের দেশের জ্বালাও-পোড়াও রাজনীতির একটা চিত্র তুলে ধরা হয়েছে। ছবিটি দেখে দর্শক কাঁদবেন, ভাববেন।’

‘দহন’ ছবির মাধ্যমে দ্বিতীয়বার একসঙ্গে বড় পর্দায় হাজির হচ্ছেন সিয়াম ও পূজা। এই জুটির প্রথম সিনেমা ‘পোড়ামন ২’। এ বছর রোজার ঈদে মুক্তি পাওয়া ছবিটি দেশের দর্শকের কাছে খুবই প্রশংসিত হয়। ব্যবসায়িকভাবেও ছবিটি সফলতা পায়।

৩০ নভেম্বর দেশের ৪০টি প্রেক্ষাগৃহে ‘দহন’ ছবিটি মুক্তি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন প্রযোজক আবদুল আজিজ। এর আগে এই ছবির একটি গান নিয়ে তোপের মুখে পড়েন প্রযোজক, পরিচালক এবং গানের গায়ক ও সংগীত পরিচালক। ছবির ‘হাজির বিরিয়ানি’ গানটি প্রকাশের পর দেশের সংগীতাঙ্গনের অনেকে ক্ষুব্ধ হন। সংগীতাঙ্গনের ৭১ জন বিশিষ্ট ব্যক্তির স্বাক্ষরসহ প্রতিবাদলিপি তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম ও চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডে জমা দেওয়া হয়। পরে গানটির কথা বদল করে ছবিটি ছাড়পত্রের জন্য চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডে জমা দেয় প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান। গত সোমবার ছবিটি ছাড়পত্র পেয়েছে।

Check Also

রেদওয়ান রনি”টাইম ট্রাভেল এক্সপেরিএন্স”

মিডিয়া ভূবন২৪- দর্শক একই সময়ে পর্দায় ৭১ এর বিজয়  ও ১৮ সালের সাফল্যের গল্প দেখবে একই …