নতুনদের সুযোগ থাকবে আমার চ্যানেল এ -ইমন খান !

অরণ্য শোয়েব | তরুণ প্রজম্মের গানের ধ্রুবতারা ইমন খান | একযুগেরও বেশি ধরে গান গেয়ে আসছে এবং তার স্থানটি ইতিমধ্যে দর্শকদের হৃদয়ে অবস্থান করছে | কেননা অনেক ভালো ভালো হিট গান আছে তার ঝুলিতে | এবং নতুন প্রজম্মের সাথেও তাল মিলিয়ে বেশ ভালো সুনাম এর অধিকারী ইমন খান | যাই হোক তার সুনামের ঝুলি খুলতে আজ না বসলেও তার ,দেয়া একটা সুখবর তার নিজের ফেসবুকের ওয়ালে তিনি শেয়ার করেছেন | মিডিয়াভবন২৪. কমের পাঠক দের জন্য এই পোস্টটি হুবহু তুলে ধরা হলো |

প্রিয় ভাই, বোন ও বন্ধুরা। প্রথমে আমার সালাম গ্রহন করুন,আচ্ছালামু আলাইকুম। হিন্দু সম্প্রদায় ও অন্যান্য জাতির প্রতি নমস্কার।

#আমি আজকে আপনাদের সামনে যে বিষয়টি তুলে ধরতে যাচ্ছি সেই বিষয়টি হচ্ছে- একজন সংগীত, শিল্পী,তার কন্ঠে গাওয়া অডিও গান,গানের মিউজিক ভিডিও সহ গানটি যেকোন ব্যানার থেকে রিলিজ প্রসঙ্গে।

#আসুন একটু পিছন ফিরে তাকাই, আমরা যারা শিল্পী,সুরকার,গীতিকার,সংগীত পরিচালক,কোম্পানী’র মালিক সহ যারা আমাদের শ্রোতা রয়েছে তারাও বিষয়টি ভাল করে জানেন যে ২০০৬-২০১৩ পর্যন্তও সব শিল্পীদের ১০-১২ টি গান দিয়ে একটি সলো এ্যালবাম করা হতো। আগে অডিও ক্যাসেট রিলিজ করতো কোম্পানী। যদি সেই অডিও ক্যাসেট’টি হিট হতো তবেই সেই অডিও এ্যালবাম’টির মিউজিক ভিডিও করতো অডিও কোম্পানী। এর মাঝে একটা সময় অডিও ভিডিও একসঙ্গে রিলিজ হতো। আমিও প্রথমে অডিও ক্যাসেট দিয়েই মিডিয়া’তে “পা” রেখেছি সেই ২০০৬ সালে যা আপনাদের কমবেশি সবার ই জানা আছে। খুব ভাল চলছিলো অডিও ইন্ডাস্ট্রিজ। শিল্পী,সুরকার,গীতিকার,কম্পোজার সহ কোম্পানী সবাই হ্যাপি বিজনেস খুব ভালো হচ্ছে। হঠাৎ করেই মন্দা-খুব সম্ভবত ২০১৩ এর শেষের দিকে অডিও এর বাজারে ধ্বস নেমে এলো,তখন মোবাইল ফোনে,মেমোরি কার্ডে আমাদের গান লোড হওয়া শুরু করলো সব জায়গায় কম্পিউটার এর দোকান থেকে। সিডি বিক্রি কমতে থাকায় অডিও কোম্পানি গুলোর আমাদের মত শিল্পীদের গান করার আগ্রহ ক্রমাগত হারাতে থাকলো। আর শিল্পীদেরও কোন উপায় ছিলোনা কারন গান করলে শুধু হবেনা সেটা রিলিজ তো করতে হবে কোন না কোন অডিও কোম্পানী থেকে, শিল্পীরাও তখন নিরুপায়। এর মাঝে আবার আরেক সমস্যা দেখা দিলো এত টাকা খরচ করে এ্যালবাম বাজারে দিতে না দিতেই সেই গান গুলো চলে যেতো ইউটিউবে। যেখান থেকে কোম্পানী তখন কোন টাকা পয়সা পেতোনা,এগুলো তখন করতো কিছু চালাক চোরেরা, ইউটিউব থেকে যে টাকা আসতো সেটা মালিকানা দাবী করে সেই চোরেরাই গিলে খেতো অবৈধ ভাবে। আমরা তখন ইউটিউব সম্পর্কে একেবারেই শিশু। আমিও চাইতামনা যে আমার গান ইউটিউবে যাক, চাইতাম আমাদের সিডি কিনে আগের মত ডিভিডি প্লেয়ারে, অডিও টেপরেকর্ডারে গান শুনুক শ্রোতারা,কিন্তু সেটা আর হয়ে ওঠেনি। লসের কথা চিন্তে করে বাংলাদেশের নামকরা কয়েকটি অডিও কোম্পানী বন্ধও হয়ে যায়। এর মাঝে কোন শিল্পীদের এ্যালবামও তেমন বাজারে পাওয়া যায়নি। দির্ঘদিন হতাশার পর আস্তে আস্তে আবারও বাজারে শিল্পীদের গান আসতে শুরু করলো। কিন্তু সেই গান আর কোন অডিও সিডি আকারে নয়, ভিডিও সিডি,ক্যাসেটে নয়, সেটা সরাসরি ইউটিউবে। আশ্চর্য জনক ব্যাপার। যেখানে গান থাকলে আমরা শিল্পীরা কোম্পানিরা লস মনে করতাম। সেখানেই এখন লাখ লাখ টাকা খরচ করে গান পৌঁছে দিচ্ছি শ্রোতাদের কাছে। তাহলে কি এটাই ছিলো সঠিক মাধ্যম? হ্যা এখন এটাই সঠিক মাধ্যম। এখন আবার বন্ধ হওয়া অডিও কোম্পানি গুলোও একটার পর একটা বিগ বিগ বাজেটে গান করছে শ্রোতাদের জন্য। আশানুরূপ ফলটাও পাচ্ছে,পাচ্ছি আমরাও। সব শেষ কথা হচ্ছে ইউটিউবের বিকল্প আর কিছু নেই, গান তৈরী হচ্ছে, গান ইউটিউবেই আসবে। এবার আমার সিদ্ধান্ত জানাবো চলুন।

#প্রায় সবাই এখন ইউটিউব চ্যানেল নিয়ে দৌঁড়াচ্ছেন। আমি তার বাইরে নই, আমারও একটা ইউটিউব চ্যানেল রয়েছে (Abortonmedia আবর্তন মিডিয়া) নামে। এই চ্যানেলটিতে এখন পর্যন্ত শুধু মাত্র আমার গাওয়া কয়েকটি গান আপলোড করা হয়েছে। শুধু আমার গানের মধ্যেই এই চ্যানেলটি সীমাবদ্ধ রাখতে চাচ্ছিনা। এই চ্যানেলে সব শিল্পীর গান থাকবে। ফেমাস শিল্পীদের গান সহ নতুন শিল্পীদের গানও রিলিজ করা হবে,যদি আমাদের নতুন শিল্পীদের গান ভাল লাগে তবেই। যারা আগ্রহী তারা যোগাযোগ করতে পারেন। আপনাদের গান ভাল লাগলে আলোচনা সাপেক্ষে গান রিলিজ করবো (আবর্তন মিডিয়া)র ইউটিউব চ্যানেলে।
নিচে তার লিংক দেয়া হলো

Check Also

অপুর্ব কে রেখে অন্তুর ভালোবাসায় মেহজাবিন?

মিডিয়া ভূবন২৪- আগামী ফেব্রুয়ারী বিশ্ব ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে  ভালোবাসার নাটক নির্মাণ করেছেন বি ইউ শুভ …