রেস্টুরেন্ট ব্যাবসায় জনপ্রিয় গায়ক নাসির

নব্বই দশকের জনপ্রিয় ব্যান্ড ‘নিউ ইভস’র ভোকাল জামাল উদ্দিন নাসের। এই নামে খুব কম মানুষই চেনে তাকে। ‘বন্যেরা বনে রয়’, ‘ভাঙচুর প্রেম’, ‘নদী’ ইত্যাদি তুমুল জনপ্রিয় গানের শিল্পী ‘নাসির’ নামেই জনপ্রিয় তিনি।

গানকে ভালোবেসেছিলেন সেই স্কুল জীবন থেকেই। তাই গানকেই প্রাণে ধারণ করে আছেন।
ক্যাসেট-সিডিতে গানের দিন ফুরানোর পর নতুন গানে তেমন নিয়মিত নন তিনি। দেশ-বিদেশে শো আর টিভিতে নানা অনুষ্ঠানে দেখা মেলে তার।

সম্প্রতি নাসির একটি রেস্টুরেন্ট খুলেছেন রাজধানীর ঝিগাতলায়। ‘ভোজন বাড়ী’ নামের রেস্তোরাঁটিতে বাংলা খাবারসহ নানা রকম মুখরোচক খাবার পাওয়া যায়। ‘রুচিশীল খাবারের প্রতিশ্রুতি’ স্লোগানে এই রেস্তোরাঁয় নানা অনুষ্ঠানের জন্য খাবারও অর্ডারও করা যায়, পাওয়া যায় ক্যাটারিং সার্ভিস।

রেস্তোরাঁ প্রসঙ্গে নাসির বলেন, ‘গান আমার প্রাণ। জীবনে যা কিছু অর্জন করেছি সবই গান করে। তবে ব্যবসায়ের প্রতিও একটা ঝোঁক ছিলো। অনেক ভেবে রেস্তোরাঁটি খুলেছি। এই শহরের মানুষ খেতে ভালোবাসে। কিন্তু ভালো মানের খাবার, বিশ্বস্ত রেস্তোরাঁর খুব অভাব। আমি একজন শিল্পী মানুষ। ভালো মানের ও পুষ্টিযুক্ত বিশুদ্ধা খাবার সরবরাহ করাটাকে বিশেষ দায়িত্ব মনে করেছি। তাই নিজেই রেস্টুরেন্ট চালু করলাম।’

তিনি জানান, এরইমধ্যে ঝিগাতলাবাসীদের মধ্যে জনপ্রিয়তা পেয়েছে ‘ভোজন বাড়ী’ রেস্তোরাঁটি। এর ঠিকানা ঝিগাতলার ৪৩/ সি।

প্রসঙ্গত, নড়াইল জেলাতে জন্ম হলেও বাবার চাকরির সুবাদে সেই ছোটবেলাতেই খুলনা শহরে বেড়ে ওঠা নাসিরের। স্কুলজীবন থেকেই গানের সঙ্গে যুক্ত। কলেজ জীবনে প্রবেশের পর বিভিন্ন অনুষ্ঠানে গাইতে গাইতে খুলনা শহরে পরিচিতি পান।

ঠিক সেই সময়ই খুলনার জনপ্রিয় ব্যান্ড ‘ইভস’ তাদের ব্যান্ডের জন্য একজন কণ্ঠশিল্পী খুঁজছিলো। নাসির সেখানে অডিশন দিয়ে হয়ে গেলেন ‘ইভস’র নাসির। আসাদুজ্জামান তাজ, সঞ্জয় বাড়ই এর কাছে গিটার শিখলেন নিজেকে পোক্ত করার জন্য। এরপরের গল্পটা কেবলই এগিয়ে চলার।

১৯৯০/৯১ সালে বের হয় ‘ইভস’র প্রথম অ্যালবাম ‘ভাঙচুর প্রেম’। অ্যালবামের ‘বন্যেরা বনে রয়’, ‘ভাঙচুর প্রেম’, ‘যেতে চাই আমি ওই নিরালায়’, ‘কান পেতে শোন’ ইত্যাদি গানগুলো শ্রোতারা দারুণভাবে লুফে নেয়।

এরপর ব্যান্ড নিয়ে নাসির সারা দেশে দাপিয়ে বেড়ান কনসার্টে। ওই দলের দ্বিতীয় অ্যালবাম ‘তন্বী তরুণী’ বের হবার পর নিজেই ‘নিউ ইভস’ নামে নতুন ব্যান্ড করেন। এই ব্যান্ডের ব্যানারেই ‘এইতো সময়’, ‘বিভ্রান্তি’, ‘প্রতীক্ষা’, ‘প্রেমেই মুক্তি’ নামের ৪টি অ্যালবাম বের করেন।

এইসব অ্যালবামের ফাঁকে ফাঁকে নিজের একক অ্যালবামেও জনপ্রিয়তা লাভ করেন নাসির। এখন পর্যন্ত ২৮টি একক অ্যালবাম, ৫০টিরও বেশি মিক্সড অ্যালবামে গান করেছেন নাসির। গেয়েছেন কিছু চলচ্চিত্রেও।

ব্যাক্তিজীবনে দশম শ্রেণিতে পড়ুয়া কন্যা নওমী ও নবম শ্রেণিতে পড়ুয়া পুত্র নিওনকে নিয়ে সুখের সংসার নাসিরের।

Check Also

রেদওয়ান রনি”টাইম ট্রাভেল এক্সপেরিএন্স”

মিডিয়া ভূবন২৪- দর্শক একই সময়ে পর্দায় ৭১ এর বিজয়  ও ১৮ সালের সাফল্যের গল্প দেখবে একই …