নবরূপে নাদিয়া আহমেদ

তাঁকে নাচতে দেখেছেন, অভিনয়ে দেখেছেন। উপস্থাপনায় দেখেছেন কখনো? এই রোজায় দেখবেন।

‘কতখানি উপস্থাপনা করতে পারছি, নিজেও জানি না। কাজটা করছি পরিচালকের কথায়। ক্যামেরার সামনে যতটা সম্ভব প্রাণবন্ত ও স্বতঃস্ফূর্ত থাকার চেষ্টা করছি। নাচ বা অভিনয়ের সময় যতটা সাবলীল, উপস্থাপক হিসেবে হয়তো ততটা সাবলীল থাকতে পারছি না। ওই যে বললাম, চেষ্টা করে যাচ্ছি’—শুরুতেই আত্মপক্ষ সমর্থন করলেন নাদিয়া আহমেদ।

রমজান উপলক্ষে মাছরাঙা টেলিভিশনে মাসজুড়ে প্রচারিত হবে রান্নার অনুষ্ঠান ‘জিরোক্যাল ডেজার্ট অ্যান্ড ড্রিংকস’। এটি উপস্থাপনা করছেন নাদিয়া। উপস্থাপনায় এবারই কি প্রথম? প্রশ্নের বিপরীতে প্রশ্ন ছুড়ে দিলেন, ‘আমাকে কি কখনো উপস্থাপনা করতে দেখেছেন?’ এবার হেসে ফেললেন, ‘আমাকে কখনো উপস্থাপনা করতে দেখেননি। আর যদি এমন কোনো স্মৃতি মাথায় উঁকি দেওয়ার চেষ্টা করে, তবে বলব বিষয়টা ভুলে যান।’ নাদিয়ার কথায় রহস্যের গন্ধ পাওয়া গেল। অবশ্য শেষ পর্যন্ত রহস্য রাখেননি। জানালেন, বেশ আগে কয়েকজন মিলে একটি অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেছিলেন। তবে সেটাকে আক্ষরিক অর্থে উপস্থাপনা বলতে নারাজ নাদিয়া।

একরকম জোর করেই নাকি তাঁকে দিয়ে উপস্থাপনা করানো হচ্ছে—‘গত মাসে নিউ ইয়র্ক গিয়েছিলাম। সেখানে থাকাকালীন মাছরাঙার অনুষ্ঠান সমন্বয়ক রাজীব ভাই প্রস্তাব দিলেন উপস্থাপনার। এই প্রস্তাবে রাজি হওয়ার যুক্তি খুঁজে পাইনি। কারণ আমার অভিজ্ঞতা নেই। রাজীব ভাই বারবার বোঝাতে লাগলেন এটা কোনো ব্যাপারই না! আমি নিউ ইয়র্কে আর তিনি ঢাকায় বসেই আমাকে কনভিনসড করে ফেললেন। আগে এই অনুষ্ঠানে দুইবার অতিথি হয়ে এসেছিলাম, সেটাও এ ক্ষেত্রে সাহস জুগিয়েছে আমাকে।’

এফডিসির তিন নম্বর ফ্লোরের শুটিং সেটে নাদিয়াকে দেখে মোটেই মনে হলো না অনভ্যস্ত কোনো উপস্থাপক। ডিরেক্টর অজয় পোদ্দার বললেন, ‘এই অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় দরকার এমন একজন, সুন্দর মুখশ্রীর সঙ্গে যার মধ্যে গৃহিণীসুলভ ব্যাপারটাও থাকতে হবে। নাদিয়াকে ছাড়া আর কাউকে আমরা ভাবতেই পারছিলাম না।’

যুক্তরাষ্ট্রে ‘ঢালিউড মিউজিক অ্যান্ড ফিল্ম অ্যাওয়ার্ড’-এর ১৭তম আসরে সেরা নৃত্যশিল্পীর পুরস্কার নিতে আমেরিকা গিয়েছিলেন। এই পুরস্কার পাওয়ার পর তাঁকে নতুন করে ভাবাতে শুরু করেছে নাচ। ভাবতে গিয়ে হতাশ হচ্ছেন, ‘নাচ নিয়ে একসময় অনেক স্বপ্ন দেখতাম, অধিকাংশই অধরা।’ কেন? ‘টেলিভিশনে এতো ভালো ভালো অনুষ্ঠান হয় অথচ নাচ নিয়ে কার্যকর কোনো অনুষ্ঠান হয় না। জাতীয়ভাবে নাচের বড় কোনো আসর নেই, যে কারণে প্রতিভাবানরা ঝরে যাচ্ছেন। নাচে পৃষ্ঠপোষকতার অভাব।’

উপস্থাপনা ছাড়া এই মুহূর্তে ঈদের নাটকের শুটিং নিয়ে দারুণ ব্যস্ত। ঈদের কয়েকটি নাটকে অভিনয় করেই আমেরিকা গিয়েছেন, ফিরে করেছেন একটির শুটিং। হাতে রয়েছে আরো কয়েকটি।

Check Also

দেবীর রেকর্ড,স্টার সিনেপ্লেক্সে প্রতিদিন চলবে দশটি শো

আসছে ১৯ অক্টোবর দেশজুড়ে মুক্তি পাচ্ছে ‘দেবী’ চলচ্চিত্রটি। এরইমধ্যে ছবিটি নিয়ে দারুণ আগ্রহ দেখা যাচ্ছে …